আমরা যারা একজন আরেক জনকে দেখতে পারি না

Picture: Krishna Nagar (Doll-making)

১.
কবি। সমসাময়িক কবি অন্য কবিদের দেখতে পারে না। নিজেকেই সেরা মনে করে নতুবা আত্ম অহং নিয়ে থাকে।

২.
ফটোগ্রাফার। কেউ অন্য জনকে সহ্য করতে পারে না। এবং সর্বদা এদের মাঝে টেন্ডেন্সি কাজ করে যে এরাই বেস্ট। কেউ কোন ব্যাপারে সমালোচনা বা ইন্সট্রাকশন দিলে তো চক্ষুশূল হয়ে যায় (নব্যদের মাঝে আধিক্য)।

৩.
সুন্দরী ও সুন্দর। যে মেয়ে গুলো জানে তারা সুন্দরী এবং যে ছেলে গুলো জানে তারা সুন্দর তাদের মাঝে অন্যদের দিকে কটাক্ষ করার মাত্রা অধিক। ইদানিং এই লিস্টে যুক্ত হয়েছে ফার্মের মুরগির মতো জিমে গিয়া ‘গতর খাটাইয়া’ মাসল ফুলানো ছেলেপিলে গুলো।

৪.
ফেসবুক ফেইম সিকার। ফেসবুকে সমাজের সমস্যা নিয়া স্ট্যাটাস দেওয়া হাজারে হাজারে লাইক পাওয়া সেলিব্রেটি। যাদের প্রধান কাজ সকাল বিকেলে হিসেব করে পিক আওয়ার দেখে সমকালীন প্রাসঙ্গিক ও অপ্রাসঙ্গিক সব কিছু নিয়ে মন্তব্য করা। এই সম্প্রদায় নিজেকে সব চাইতে বিজ্ঞ ও অভিজ্ঞ মনে করে নিজ বিষয়ের বাইরেও এক্সপার্টিজ মন্তব্য দিয়ে। টেকনিক্যাল ভুল দেখিয়েছেন তো শত্রু হয়েছেন। এই ক্যাটাগরিতে সামাজিক আন্দোলন কর্মী, ধর্ম প্রচার কারী, ব্লগার, রাজনৈতিক থেকে শুরু করে বুড়ো বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসার’রাও অন্তর্গত।

৫.
আরো কিছু যথাক্রমে: প্রেমিক ও প্রেমিকা। হুজুর ও নাস্তিক। অনুবাদ-লেখক ও ফিচার লেখক। লিডার। সামাজিক বিজনেস পার্সোন।

৬.
বাংগালি।

বি.দ্র. : যারা সম সাময়িক একজন অন্য জনের কাজে উৎসাহ বা প্রশংসা করছেন তারা হয় ব্যতিক্রমী কিংবা স্বার্থান্বেষী।

Criticizing humor by

Ahmed Sanny

Leave a Reply

Close Menu